ট্রেলার নিয়ে আপত্তি

প্রিন্স হ্যারি-মেগান মার্কেলের প্রেমকাহিনি অবলম্বনে নির্মিত সিনেমার প্রথম ঝলক (ফার্স্ট লুক) প্রকাশিত হলো কয়েক দিন আগে। এবার প্রকাশিত হলো ২০ সেকেন্ডের একটি ট্রেলার। অভিযোগ উঠেছে, ব্রিটিশ রাজ পরিবারের শালীনতা ভাঙা হয়েছে ট্রেলারে।

ট্রেলারটিতে প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেলের আপত্তিকর ঘনিষ্ঠ দৃশ্য দেখানো হয়েছে। এসব দৃশ্য ঠিক রাজ পরিবারের সঙ্গে যায় না। ব্রিটিশ মনার্কিস্ট সোসাইটির প্রধান অভিযোগ আনেন, ট্রেলারে রাজকীয় সম্মান ক্ষুণ্ন হয়েছে এবং কৌতুকাকারে রাজপরিবারের এই দুই সদস্যকে দেখানো হয়েছে। ট্রেলারে দেখা যায়, সোফায় বসে মেগান হ্যারিকে বলেন, ‘আমাকে সত্যিকারের কিছু বলো’। হ্যারি বলেন, ‘এই নিখুঁত রাজকীয় জীবন আমার প্রয়োজন নেই। আমি শুধু তোমাকে চাই।’ এরপর হ্যারি হাঁটু গেড়ে বসেন। বিয়ের আংটির বাক্স খোলেন। বিস্মিত মেগান হাত দিয়ে মুখ ঢেকে দেন। দেখা যায়, তাঁরা ঘনিষ্ঠ হচ্ছেন, চুমু খাচ্ছেন, এমনকি একসঙ্গে অন্তরঙ্গভাবে বিছানাতেও শুয়ে আছেন।

ব্রিটিশ মনার্কিস্ট সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান থমাস মেস আর্চার মিলস বলেন, সাধারণ শালীনতাটুকুও এখানে ভাঙা হয়েছে। ট্রেলারের দৃশ্যে দুজনকে বিছানায় অন্তরঙ্গভাবে দেখা গেছে। এটা বোঝায় কতটা অশ্লীলভাবে দুজনকে দেখানো হয়েছে।

ছবিটি প্রদর্শিত হবে মার্কিন চ্যানেল লাইফটাইম নেটওয়ার্কে। ছবি মুক্তির দিনক্ষণও প্রস্তুত। হ্যারি অ্যান্ড মেগান: আ রয়াল রোমান্স মুক্তি পাবে আগামী ১৩ মে, সত্যিকারের রাজকীয় বিয়ের মাত্র ছয় দিন আগে। আর তার আগেই ট্রেলারে এমন দৃশ্য থাকায় বেশ বিতর্কের মুখে পড়েছে ছবিটি। এটি নির্মাণ করছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নির্মাতা মেনহাজ হুদা। মিরর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *